নাটোরে কিশোরী প্রেমিকার পেটে সন্তান, সন্তানের বাবা হতে চায় না প্রেমিক

কিশোরী প্রেমিকার গ’’র্ভে’র সন্তানের ‘দা’য় নিচ্ছেন না জিল্লুর রহমান নামে এক প্রে’মিক। প্রে’মিকার পরিবারের বি’রু’দ্ধে থা’না’য় মি’থ্যা মা’ম’লা করতে গিয়ে উ’ল্টো আ’ট’ক হয়েছেন তিনি। নাটোরের গুরুদাসপুরে এ ঘটনা ঘটে। আ’ট’’ক জিল্লুর রহমান ওই উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের মামুদপুর পশ্চিমপাড়ার আক্কাস আলীর ছেলে।

 

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এক বছর আগে প্রতিবেশী ওই কিশোরীর সঙ্গে ‘প্রে’মে’র স’ম্প’’র্ক গড়ে ওঠে জিল্লুরের। এক পর্যায়ে বিয়ের প্র’লোভ’ন দেখিয়ে প্রে’মিকা’র স’ঙ্গে শা’’রী’রি’ক স’ম্প’’র্কে ‘লি’প্ত হন তিনি। এতে অ’’ন্তঃ’স’ত্ত্বা হয়ে পড়েন তার প্রেমিকা।

 

এরপরই পি’ঠ ফি’রিয়ে দেন জিল্লুর। ওই কিশোরীর ‘গ’র্ভে’র সন্তানের বাবা হতে না’রা’জ তিনি। এমনকি ভু’ক্ত’ভো’গীর পরিবারকে হু’ম’’কিও দেন জিল্লুরের বাবা আক্কাস। এদিকে স্বামীর স্বী’কৃতি চেয়ে বারবার জিল্লুরের কাছে যাচ্ছেন তার অ’ন্তঃ’’স’ত্ত্বা প্রে’মিকা।

 

ভু’ক্তভো’গী কিশোরী বলেন, আমার স’ন্তা’নের বাবা হতে চায় না জিল্লুর। স্থানীয়ভাবে বিয়ের শ’র্তে মী’”মাং’সা হলেও পরবর্তীতে সে মু’খ ফিরিয়ে নেয়। এরপর দায় এড়াতে আমার পরিবা’রের বি’রু’দ্ধে থা’না’য় মি’থ্যা মা’ম’লা করতে গিয়ে আ’ট’ক হয়। তিনি আরো বলেন, আমি আই’নি ঝা’মে’লায় জ’ড়া’তে চাই না। আমার সন্তা’নের স্বী’কৃ’তি চাই। গুরুদাসপুর থানার ওসি মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, অ’ভিযু’ক্ত জিল্লুর রহমানকে আ’ট’ক করে রাখা হয়েছে। ভু’ক্ত’ভো’গী কিশোরীকে ডে’কে’ পাঠানো হয়েছে। সে এলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Be the first to comment

Leave a Reply